জাদুঘরে কবি শামসুর রাহমানের ‘জীবন ও সাহিত্যকর্ম’ নিয়ে আলোচনা সভা ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী আয়োজন।

ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০১৭। বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর, বিকেল ৩টায় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে বাংলা ভাষার অন্যতম প্রধান কবি শামসুর রাহমান-এর ‘জীবন ও সাহিত্যকর্ম’ বিষয়ক আলোচনা সভা ও আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে। আলোচনা ও প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব হাসানুল হক ইনু এম.পি। আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকেন দেশের বিশিষ্ট কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা, কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী, কবি নাসির আহমেদ ও কবি মাহবুব আজিজ। সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট সংস্কৃতিজন কবি হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন। অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণে জাদুঘরের মহাপরিচালক জনাব ফয়জুল লতিফ চৌধুরী বলেন, ইতিহাস ঐতিহ্যের নিদর্শন সংগ্রহের পাশাপাশি জাদুঘর কবি সাহিত্যিকদের জীবন ও সাহিত্যকর্ম নিয়ে আলোচনা করতে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এর ফলে একজন মহৎ মানুষ ও কবি সম্পর্কে আগামী প্রজন্ম জানতে পারবে।

প্রধান অতিথির ভাষণে জনাব জনাব হাসানুল হক ইনু এম.পি বলেন, কবি শামসুর রাহমান বঙালির মননশীলতার শ্রেষ্ঠ নাগরিক কবি। সমসাময়িক সামাজিক, অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক ঘটনাপ্রবাহ কবি শামসুর রাহমান হৃদয় দিয়ে উপলব্দি করতেন এবং তাঁর লেখনিতে তা প্রকাশ করতেন। আলোচকগণ কবি শামসুর রাহমানের ব্যক্তিগত জীবন ও সাহিত্যের নানা দিক নিয়ে আলোচনা করে বলেন, কবি শামসুর রাহমানের ক্ষুরধার লেখনী এবং লেখার ভেতরকার প্রাণরস আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবে যুগের পর যুগ।

সভাপতির ভাষণে জনাব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন বলেন, কবি শামসুর রাহমানের লেখাকে এসময়ের অনন্য সাহিত্য উপাদান হিসেবে বিবেচনা করা যায়। শামসুর রাহমান কালোত্তীর্ণ কবি।

আলোচনা শেষে প্রধান অতিথি জনাব হাসানুল হক ইনু এম.পি জাদুঘরের আড়াই তলায় মিলনায়তন লবি গ্যালারিতে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন এম.এ. তাহেরের তোলা ১০০টি আলোকচিত্র নিয়ে আয়োজিত প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

এই প্রদর্শনীটি আগামী ৫ নভেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত সকাল ১০:৩০ থেকে বিকাল ৫:৩০ দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।